আজ সোমবার, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, ২৮ মে ২০১৮ খ্রিস্টাব্দ
শিরোনাম: মিসরে মসজিদে নিহত ২৩০ সমবেদনায় মার্কিন প্রেসিডেন্ট!       কুষ্টিয়ায় বাস-ট্রাক সংঘর্ষে নিহত ১, আহত-১৫       এস এ পরিবহনের গাড়িতে আগুন ৪৫ লাখ টাকার মালামাল ভস্মিভুত       শেরপুরের ঝিনাইগাতীতে দেড় বছরেও উদ্বোধন হয়নি ফায়ার সার্ভিস স্টেশন       ৯ রানের জয় পেলো খুলনা       শপথ নিলেন জিম্বাবুয়ের নতুন প্রেসিডেন্ট এমারসন নানগাগবা       প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য প্রমাণ করে গুমের সঙ্গে সরকার জড়িত : মির্জা ফখরুল      
অশুভ শক্তির ষড়যন্ত্র রুখতে হবেফেসবুক একবিংশ শতাব্দীর সবচেয়ে শক্তিশালী সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম। কোটি কোটি মানুষের জীবনযাপনের অপরিহার্য অনুষঙ্গে পরিণত হয়েছে এটি।ফেসবুকের মাধ্যমে মানুষ সংবাদপত্র ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার আগেই জেনে যাচ্ছে অনেক খবরাখবর। বিপন্ন মানবতার পাশে সহায়তার হাত বাড়ানোর ক্ষেত্রেও ফেসবুক প্রশংসনীয় অবদান রাখছে। তবে স্বীকার করতেই হবে ফেসবুকসহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের অপব্যবহার ব্যক্তি, পারিবারিক,
উচ্চাভিলাষী বাজেট প্রণয়নে দক্ষ আমাদের অর্থমন্ত্রীদুর্নীতি স্বজনপ্রীতির ঊর্ধ্বে থেকে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতার সঙ্গে বাজেট বাস্তবায়ন করতে পারলে প্রকৃতপক্ষে জনগণ ও দেশের উন্নয়ন  হবে এবং ২০২১ সালের মধ্যে মধ্যম আয় ও ২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশ বিশ্বের বুকে একটি সমৃদ্ধি আত্মমর্যাদাশীল রাষ্ট্র হিসেবে পরিচিতি অর্জন করবে। একটি সরকার এক বছর রাষ্ট্রের বিভিন্ন সেক্টরে বিভিন্ন খাতে রাষ্ট্রের উন্নয়নে অর্থ ব্যয় এবং যে পরিমাণ
গণপরিবহনে নারী ভোগান্তির শিকার, প্রতিকার প্রয়োজনআমরা এখন কম-বেশি সবাই জানি যে আমাদের দেশের নারীরা নানাভাবেই নিগ্রহের শিকার হয়ে থাকেন। পথে-ঘাটে, অফিস-আদালতে, কর্মক্ষেত্রে, পরিবারে এমন কোনো জায়গা নেই যেখানে নারীরা নিজেদের সম্পূর্ণ নিরাপদ ভাবতে পারেন। সম্প্রতি অ্যাকশন এইডের এক গবেষণায় উঠে এসেছে, দেশের ২৩ শতাংশ নারী গণপরিবহনে অপমানের শিকার হয়ে থাকেন। সংস্থাটির ‘নারী সংবেদনশীল নগর পরিকল্পনা’
চালের দাম নিয়ন্ত্রণে কার্যকর পদক্ষেপ প্রয়োজনরাজধানীর বাজারগুলোতে নিয়ন্ত্রণহীনভাবে বেড়েই চলেছে চালের দাম। কয়েক দিন পরপরই এক দফা করে চালের দাম বাড়ছে। এসব দেখার যেন কেউ নেই। নতুন ধান বাজারে এলেও চালের দাম কমার কোনো লক্ষণ দেখা যাচ্ছে না। পবিত্র রমজানকে সামনে রেখে অধিকাংশ নিত্যপণ্যের দাম মোটামুটি বাড়লেও চালের দাম বেড়েছে আরেক দফা। মিল মালিকরা বলছেন,
পাঠ্যবইয়ে ভুলগুলো সংশোধনে উদ্যোগ নিনএকথা বলার অপেক্ষা রাখে না যে, সরকারি বিনামূল্যের পাঠ্যবইয়ে অসংখ্য ভুলভ্রান্তি ও অসঙ্গতি ধরা পড়ার বিষয়টি এখন আর কারো জানার বাকি নেই। শুধু ভুলভ্রান্তিই নয়, এসব বইয়ের ছাপার মান নিয়েও যারপর নাই প্রশ্ন উঠেছিল। দেখা গেছে, বিনামূল্যে বিতরণকৃত বইয়ের মলাট ঝকঝকে হলেও বইয়ের ভেতরে ছাপা অত্যন্ত নিম্নমানের। সর্বোপরি শিশু শিক্ষার্থীদের
আবারও জঙ্গি অভিযান কঠোর হস্তে প্রশাসন জঙ্গিদের অপতৎপরতা যেন কিছুতেই কমছে না। একের পর এক জঙ্গি আস্তানার সন্ধান পাওয়া যাচ্ছে। একইসঙ্গে তৎপর রয়েছে আমাদের আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীও। যেখানেই আস্তানা গাড়ছে সেখানেই অভিযান চালাচ্ছে আমাদের আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। সম্প্রতি রাজশাহীর গোদাগাড়ীতে একটি জঙ্গি আস্তানায় আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী পরিচালিত ‘সান ডেভল’ অভিযান চলাকালে একই পরিবারের চারজনসহ পাঁচজন আত্মঘাতী
কেন্দ্রীয় কারাগার ঝুঁকিতে সংস্কারের উদ্যোগ প্রয়োজনকারাগারের নিরাপত্তা যে কোনোভাবেই হোক, যদি ঝুঁকির মধ্যে পড়ে তবে তা উদ্বেগজনক বিষয়। সম্প্রতি পত্রপত্রিকায় প্রকাশিত খবরে জানা গেল, চরম ঝুঁকিতে রয়েছে সদ্য চালু হওয়া কেরানীগঞ্জের ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগার। তথ্যমতে, বছর না ঘুরতেই কারাগারটির বিভিন্ন স্থানে ফাটল দেখা দিয়েছে। খসে পড়ছে আস্তরণ ও চুনকাম। আর যখন চৈত্র মাসের হালকা বাতাসে
প্রবাসী আয় কমছে, নতুন শ্রমবাজারের খোঁজ করতে হবেআমরা লক্ষ্য করে দেখেছি যে গত ১০ মাসে প্রবাসী আয়প্রবাহ ১৬ শতাংশেরও বেশি কমেছে। দেশের জিডিপিতে ১২ শতাংশ অবদান রাখা, বৈদেশিক মুদ্রা অর্জনের অন্যতম প্রধান খাত প্রবাসী আয়ে ভাটার টান দেশের অর্থনীতির জন্য এক উদ্বেগজনক ঘটনা। সবারই জানা, বিশ্ব অর্থনীতিতে মন্দা চলাকালে রেমিট্যান্স আয় বাংলাদেশের অর্থনীতিকে টিকিয়ে রাখার কৃতিত্ব দেখিয়েছে।
রমজান আসছে, পণ্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে কার্যকর উদ্যোগ জরুরি আমাদের দেশে একটা রীতি হয়ে দাঁড়িয়েছে আর তা হলো রমজান এলেই  পণ্যের মূল্য বৃদ্ধি করা। পৃথিবীর আর কোনো দেশে এই রীতি চালু না থাকলেও বা না করলেও আমাদের দেশে এটি বিদ্যমান। এটা হয়তো চলতেই থাকবে অবিরাম গতিতে। কারণ এটা নিয়ন্ত্রণে সরকার অনেক চেষ্টা করলেও কোনোবারই পুরোপুরি সফল হতে পারেনি। তবে 
আবারও ৪ জঙ্গি আত্মঘাতী আইনের কঠোরতা দরকারজঙ্গি দমনে সরকার প্রাণপণ চেষ্ট চালিয়ে যাওয়ার পরও যেন জঙ্গি তৎপরতা কিছুতেই নির্মূল হচ্ছে না। আজ এখানে জঙ্গি হামলা হচ্ছে তো কাল আরেক জায়গায় হচ্ছে। সরকারও আজ এখানে অভিযান যালাচ্ছে তো কাল আবার আরেক জায়গায় অভিযান চালাচ্ছে। সরকার আর জঙ্গিরা যেন পাল্লাপাল্লি দিয়ে চলেছে। আমরা লক্ষ করে দেখেছি কিছুদিন পরপরই
প্রকাশক ও সম্পাদক : মোহাম্মদ রফিকুল আমীন।
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মিয়া বাবর হোসেন।
© ২০১৭ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | দৈনিক ডেসটিনি.কম
আলী’স সেন্টার, ৪০ বিজয়নগর ঢাকা-১০০০।
বিজ্ঞাপন : ০১৫৩৬১৭০০২৪, ৭১৭০২৮০
email: ddaddtoday@gmail.com, ওয়েবসাইট : www.dainik-destiny.com
ই-মেইল : destinyout@yahoo.com, অনলাইন নিউজ : destinyonline24@gmail.com
Destiny Online : +8801719 472 162